Daily Poribar
Bongosoft Ltd.
ঢাকা শনিবার, ১৮ মে, ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
ঈদ ও নববর্ষের ছুটি

পর্যটকদের ভিড়ে মুখরিত কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত


দৈনিক পরিবার | আবদুল্লাহ মানিক এপ্রিল ১৪, ২০২৪, ০১:৩৬ পিএম পর্যটকদের ভিড়ে মুখরিত কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত

ঈদের তৃতীয় দিন ও নববর্ষের ছুটিতে নানা বয়সের হাজার হাজার পর্যটক ও দর্শনার্থীদের ভিড়ে মুখরিত কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত। ঈদের পরের দিন সকাল থেকে দর্শনার্থী ও পর্যটকদের থেমে নেই আনন্দ। বেলা যত বাড়তে থাকে ততই পর্যটকদের ভিড় বাড়তে থাকে সমুদ্র সৈকতে।
আগত এসব দর্শনার্থী ও পর্যটকরা সমুদ্র নীল জলে সাঁতার কাটাসহ প্রিয়জনের সঙ্গে ছবি তুলে ছুটির সময় উপভোগ করছেন। অনেকে আবার সৈকতের বেঞ্চে বসে উপভোগ করছেন সমুদ্র ও প্রকৃতি। সৈকতে হই হুল্লোড়, ছুটাছুটি, ফুটবল খেলা যেন আনন্দের কমতি ছিল না। সমুদ্রর উত্তাল ঢেউয়ের তালে তালে নেচে গেয়ে আনন্দ উৎসব মেতে ওঠে আগত পর্যটক এবং দর্শনার্থীরা।
কুয়াকাটার কুয়া, সৈকতের লেম্বুরবন, তিন নদীর মোহনা, গঙ্গামতির লেক, লাল কাকড়ার চর, মিশ্রিপাড়া বদ্ধ বিহার, শ্রী মঙ্গল বদ্ধ বিহার, টুরিস্ট বোটের মাধ্যমে সমুদ্রপথে বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ভ্রমণ, রাখাইন পল্লীসহ বিভিন্ন দর্শনীয় স্পটগুলা ঘুরে বেড়িয়েছেন এসব পর্যটকরা।
ঈদের দ্বিতীয় দিন থেকে আবাসিক হোটেল মোটেল ও রিসোর্ট গুলোর ৯৫℅ কক্ষই বুকিং ছিল বলে জানিয়েছেন হোটেল মোটেল কৃর্তপক্ষ। ১৫ দিন আগে থেকেই অনেকেই অগ্রিম বুকিং দিয়ে রাখে। খাবার হোটেল গুলোতেও খাবারের জন্য লাইন পরে যায়। রাখাইন মহিলা মার্কেট, ঝিনুক মাকের্ট, মিশ্রিপাড়া তাঁত পল্লী সবখানেই কেনাকাটায় ভিড় লেগে যায়। ফিস ফ্রাইয়ের দোকানে সিরিয়াল দিয়ে কাকড়া, চিংড়িসহ নানা ধরনের সমুদ্রের মাছ খেতে দেখা গেছে। আগত এ সকল পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তায় পর্যটন পুলিশের সতর্কতা ছিলে চোখে পড়ার মত।
রমজানের একমাস পর্যটনমুখী ব্যবসায়িরা অলস সময় কাটিয়েছেন। গত ১ মাস লোকসান গুনতে হয়েছে ব্যবসায়ীদের। ঈদের ছুটিতে  অসংখ্য পর্যটক ও দর্শনার্থীদের আগমনে ব্যবসায়িদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে। পর্যটন ব্যবসায়িদের মাঝে কর্ম ব্যস্ততা ফিরে এসেছে।
ঢাকা থেকে আসা আবু আবদুল্লাহ তালহা বলেন, ঈদের নামাজ পড়েই বন্ধুদের নিয়ে মোটরসাইকেলে কুয়াকাটা চলে এসেছি। এখন জোয়ার চলছে। বন্ধুদের নিয়ে হই হুল্লোড়ে মেতেছি। দিনটা বেশ ভালোই কাটছে।
গাজিপুর থেকে আসা পর্যটক মো. আরিফ দম্পতি বলেন, ঈদের আনন্দকে ভালোভাবে কাটাতেই কুয়াকাটায় এসেছি। এখানে পরিবেশটা আজ দারুণ। আমরা হাতে হাত রেখে ঘুরছি। আমাদের ঈদ কুয়াকাটায় স্পেশালভাবে কাটছে। অনেক টুরিস্ট কুয়াকাটা এসেছে। সবকিছু মিলে আমরা অত্যন্ত খুশি।
ঝিনুক ব্যবসায়ী শাহিন জানান, পদ্মা সেতু উদ্বোধন হওয়ার কারণে ঢাকা থেকে সহজেই এবছর অসংখ্য টুরিস্ট আসছে যার জন্য আমরা অনেক খুশি।
কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়শনের সাধারণ সম্পাদক এম এ মোতালেব শরীফ জানান, এবারের ঈদুল ফিতর ও পহেলা বৈশাখ এর লম্বা ছুটিতে কুয়াকাটায় অসংখ্য পর্যটকের আগমন ঘটে। প্রথম শ্রেণির হোটেল মোটেল রিসোর্টগুলোর প্রায় ৮০ ভাগ রুম আগেই বুকিং হয়েছিল। ঈদের দিন স্থানীয় পর্যটকদের ভিড় ছিল বেশি। এখন থেকে ভিআইপি পর্যটকদের আগমন বেশি।
টুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ বলেন, আগত এসব পর্যটকদের নিরাপত্তায় কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। সাদা পোশাকেও নজরদারি রয়েছে। পর্যটন পুলিশের পাশাপাশি থানা পুলিশ মহাসড়কে আগত পর্যটকদের নির্বিঘ্নে যাতায়াত নিশ্চিত টহল দিচ্ছে।

Side banner