Daily Poribar
Bongosoft Ltd.
ঢাকা শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০
শীর্ষ ক্ষমতাধর নারী

ফোর্বসের তালিকায় শেখ হাসিনা ৪৬তম


দৈনিক পরিবার | নিজস্ব প্রতিবেদক ডিসেম্বর ৬, ২০২৩, ০৯:২২ পিএম ফোর্বসের তালিকায় শেখ হাসিনা ৪৬তম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) প্রকাশিত মার্কিন সাময়িকী ফোর্বসের ‘দ্য ওয়ার্ল্ডস মোস্ট পাওয়ারফুল উইমেন ২০২৩’-এর তালিকায় ৪৬তম স্থান দখল করেছেন। আগের বছর তিনি ফোর্বসের শক্তিশালী নারীদের তালিকায় ৪২তম স্থানে ছিলেন। এছাড়াও তিনি ‘রাজনীতি ও নীতি’ বিভাগে ১৮ জন নারীর মধ্যে ৯ম স্থান অধিকার করেছেন।
২০২৩ র‌্যাঙ্কিংয়ে নারীরা ছয়টি বিভাগের প্রতিনিধিত্ব করেন। ব্যবসা, প্রযুক্তি, অর্থ, মিডিয়া ও বিনোদন, রাজনীতি ও নীতি এবং জনহিতৈষণা। প্রতিটি বিভাগের মধ্যে র‌্যাঙ্ক নির্ধারণ এবং পাশাপাশি ১০০ জনের তালিকায় সামগ্রিক র‌্যাঙ্ক নির্ধারণ করতে ফোর্বস চারটি মেট্রিক্স প্রয়োগ করেছে: অর্থ, মিডিয়া, প্রভাব এবং প্রভাব বলয়।
যারা বৈশিষ্ট্যযুক্ত তারা হল
ফোর্বস কর্পোরেট থেকে সৃজনশীল বিশ্বের প্রতিটি সেক্টরে ক্ষমতা বিষয়ে একটি আধুনিক, দূরদর্শী দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করে এমন নির্মাতা, উদ্ভাবককে তুলে ধরেছে। ফোর্বস মঙ্গলবার বিশ্বের  সবচেয়ে শক্তিশালী ১০০ নারীর ২০তম বার্ষিক র‌্যাঙ্কিং ঘোষণা করে।
তালিকাটি আজকের বিশ্বে জীবন পরিবর্তনকারী প্রভাব ফেলেছেন এমন সবচেয়ে অনুপ্রেরণাদায়ী নারী সিইও, বিনোদন ব্যক্তিত্ব, রাজনীতিবিদ, সমাজসেবী ও নীতি নির্ধারকদের নির্দিষ্ট র‌্যাঙ্কিং।
ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন ডার লেয়েন টানা দ্বিতীয় বারের মতো এবারও তালিকার শীর্ষে রয়েছেন। এরপরে রয়েছেন ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন লাগার্ড ও মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। এ দু’জন তাদের র‌্যাঙ্কিং যথাক্রমে দুই ও তিন নম্বরে ধরে রেখেছেন।
আমেরিকান গায়ক গীতিকার টেলর সুইফ্ট তালিকার সূচনার পর থেকে প্রথমবারের মতো একজন বিনোদন ব্যক্তিত্ব হিসেবে পঞ্চম স্থান অধিকার করেছেন।
শেখ হাসিনাকে নিয়ে ফোর্বসের প্রকাশিত সংক্ষিপ্ত প্রোফাইল অনুযায়ী বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘতম সময় ধরে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। বর্তমানে তার চতুর্থ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা নারী সরকার প্রধান।    
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ২০১৮ সালে ৩০০টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ২৮৮টি আসন জয়ের পর তিনি চতুর্থ মেয়াদে এবং একই সাথে টানা তৃতীয় মেয়াদ প্রধানমন্ত্রী হন।

Side banner