Daily Poribar
Bongosoft Ltd.
ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ১২ আষাঢ় ১৪৩১

পূর্ব-পুরষদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে মহিষের গাড়িতে চড়ে বিয়ে


দৈনিক পরিবার | আহসান হাবিব জুন ৮, ২০২৪, ০৮:৪৪ পিএম পূর্ব-পুরষদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে মহিষের গাড়িতে চড়ে বিয়ে

পূর্বপুরুষদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে তেঁতুলিয়ায় মহিষের গাড়িতে চরে বিয়ে করেছেন মাসুবুল হক শুভ নামের এক যুবক। শুভ উপজেলার সদর ইউনিয়নের সাহেবজোত গ্রামের বাস চালক নজরুল ইসলামের ছেলে।
জানা যায়, সাহেবজোত এলাকার ড্রাইভার ইউনুস আলীর মেয়ে ইসমিতা শারমিনের সাথে বিয়ে হয় শুভ’র। বিয়েতে উকিল দেন আরেক ড্রাইভার মোতাহের হোসেন।
শনিবার বিকেলে সাহেবজোত গ্রামে বৌভাতের অনুষ্ঠানে গিয়ে কথা হয় বর মাসুবুল হক শুভ’র সাথে। তিনি জানান, আমি শুনেছি আমার বাপ-দাদা পূর্ব পুরুষরা এক সময় বিয়ের সময় মহিষ কিংবা গরুর গাড়িতে চড়ে বিয়ে করতে যেতেন। আমি কখনো দেখিনি। বাবার ইচ্ছে পূর্ব পুরুষদের পুরাতন ঐতিহ্য ধরে রাখতে শুক্রবার বিয়ের দিন বাহন হিসেবে মহিষের গাড়ি ঠিক করলেন। কনের বাড়ি আমাদের বাড়ি থেকে প্রায় চারশগছ দূরত্ব থাকায় মহিষের গাড়িতে চড়ে কনের বাড়িতে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। বেশ ভালো লেগেছে। এ প্রজন্মের ছেলে হয়ে পূর্বপুরুষদের যুগে মহিষের গাড়িতে চড়ে বিয়ে করতে পারবো তা কল্পনাও ছিলো না কখনো। আমাদের জন্য দোয়া করবেন।
নিগার সুলতানা ঈশিতা বলেন, এটা আমার জীবনের প্রথম কোন বিয়েতে মহিষের গাড়িতে চড়লাম। ছোট বেলা থেকে শুনেছি বিয়েতে আগে গরু, মহিষ কিংবা ঘোড়ার গাড়ি বাহন হিসেবে ব্যবহার করা হতো। খুব ভালো লেগেছে। যদিও কনের বাড়ি খুব কাছে ছিল, তারপরেও খুব ভালো লেগেছে।
বরের বাবা নজরুল ইসলাম বলেন, আসলে আমি পেশায় বাস চালক হলেও আমার বাপ-দাদা তথা পূর্বপুরুষদের ঐতিহ্য ধারণ করতেই ছেলের বিয়েতে আধুনিক গাড়ির পরিবর্তে মহিষের গাড়ি ব্যবস্থা করেছি। আজ থেকে ২৫-৩০ বছর আগেও এ অঞ্চলে গরু-মহিষের গাড়িতে চড়ে বিয়ে হতো। সেই কথা চিন্তা করেই ঠিক করেছিলাম ছেলের বিয়ের দিনে মহিষের গাড়ি ঠিক করবো। সে চিন্তা থেকেই এ আয়োজন। মহিষের গাড়িতে বিয়েতে যেতে পেরে অনেকে খুঁশি ভালো লেগেছে।

Side banner